বাংলা ছবির কোনো মাথামুন্ডু নেই, টাকার জোরেই চলছে সব রিয়্যালিটি শো, টলিউড-বলিউড নিয়ে বিস্ফোরক কুমার শানু

সঙ্গীতজগতের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী হলেন কুমার শানু(Kumar Sanu)। রোমান্টিক গানে তার অসাধারণ সুরের জাদুতে মুগ্ধ হয়েছেন আসমুদ্রহিমাচল। প্রেমে পড়ার গান থেকে বিচ্ছেদের গান সবেতেই কুমার শানুর গলার সুর মানানসই।

দীর্ঘ বহু বছর ধরে তিনি বলিউড-টলিউড দুই জায়গাতেই চুটিয়ে কাজ করেছেন। তবে তার খ্যাতির পাশাপাশি তাকে নিয়ে বিতর্ক চলে প্রচুর। বরাবরই নিজের মনের কথা তিনি স্পষ্ট ভাবে বলে দিতে পছন্দ করেন।

আর সেই কারণেই বহুবার বিতর্কে জড়িয়েছে তার নাম। এইবারও সেটা আর অন্যথা হয়নি। সম্প্রতি কলকাতায় বাংলা ছবির গান ও ট্রেলার রিলিজের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন কুমার শানু।

সেখানে এসেই তিনি ইন্ডাস্ট্রির বিরুদ্ধে নিজের মনের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ‘টাকার রং কালো’ এই গানের ট্রেলার রিলিজের জন্য কলকাতায় এসেছিলেন গায়ক।

এদিন তিনি সংবাদমাধ্যমের সামনে বাংলা ইন্ডাস্ট্রিকে নিয়ে একের পর এক মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন যে একসময় তিনি অসংখ্য বাংলা ছবির গান গেয়েছেন এবং সেই সমস্ত গান সুপারহিট হয়েছে কিন্তু এখন তিনি আর বাংলা ছবি দেখেন না।

কিন্তু কেন? এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন কুমার শানু। তিনি বলেন যে এখনকার বাংলা ছবিতে কোন মাথামুন্ডু নেই। কিছু ছবি এমন সিরিয়াস করে দেয় যে রাতের ঘুম উড়িয়ে দেয়।

আর কিছু রোমান্টিক ছবির কোন মাথামুন্ডু নেই এই কারণেই তিনি এখন আর বাংলা ছবি দেখেন না। এদিন তিনি গানের রিয়েলিটি শো নিয়েও কটাক্ষ করেছেন। এখন কেন পুরনো গানের রিমেক করা হচ্ছে?

যারা সংগীত পরিচালনা করছেন তারা কনটেম্পোরারি কিছুই পাচ্ছেন না? বর্তমানে পুরনো গান নিয়ে রিমেক করে নতুন গান অনায়াসেই করে নিচ্ছেন। শুধুমাত্র নাচানাচি করলেই গান হয়ে যায় না। গান বা মিউজিক একটি থেরাপির মতো বলেই মনে করেন কুমার শানু।

এদিনে রিয়ালিটি শো নিয়েও বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। গায়ক বলেন, আগেও প্রতিযোগিতা হত তবে সেটা সুস্থ প্রতিযোগিতা ছিল। এখন রিয়েলিটি শো শুধুমাত্র টাকার জন্য চলছে। কেউ বাজার করে দিচ্ছে তো কেও রেশন এনে দিচ্ছে আবার কেউ বড়সড় উপহার দিচ্ছে।

এইসবের ওপর নির্ভর করেই চলছে বর্তমানে রিয়ালিটি শো। টলিউডের পাশাপাশি বলিউডকে নিয়ে মন্তব্য করেছেন তিনি। বলিউডে যে লবিবাজি রয়েছে সেটাও স্বীকার করে নিয়েছেন কুমার শানু। তবে তিনি একথা বলেছেন যে কারোর যদি সঠিক প্রতিভা থাকে তাহলে হাজার চেষ্টা করলেও সেটাকে দমিয়ে রাখা যায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.